Fresh Shutki

Sale!

গইন্না/ঘনিয়া শুঁটকি – Goinna/Ghonia Shutki

800৳ 1,500৳ 

গইন্না/ঘনিয়া শুঁটকি সম্পূর্ণ নির্ভেজাল, অর্গানিক পদ্ধতি এবং কেমিক্যাল মুক্ত ও সম্পূর্ণ ধুলাবালি মুক্ত।

অর্ডার করলেই পৌছে যাবে আপনার রান্নাঘরে। তাই এখনই অর্ডার করুন।

ফোনে অর্ডার করতে কল করুন

গইন্না/ঘনিয়া শুঁটকি

লাবিও গনিয়াস (Labeo gonius), পরিচিত একটি মাছ যা ঘইন্যা বা কুর্চি নামেও পরিচিত, বাংলাদেশে পাওয়া একটি মাছের প্রজাতি। এটির পিছনে একটি স্বতন্ত্র লালচে রঙ এবং দৃশ্যমান অনুদৈর্ঘ্য রেখাসহ গাঢ় স্কেল রয়েছে। যদিও মাছটি সারা বাংলাদেশে পাওয়া যায়, তবে এর প্রাপ্যতা সীমিত এবং এটি একটি বিপন্ন প্রজাতি হিসাবে বিবেচিত হয়।

লাবিও গনিয়াস বর্ষার মাসগুলিতে বছরে একবার প্রজনন করে, অক্টোবর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত পরিপক্কতা ঘটে এবং পরিপক্ক মাছ মার্চের শেষ থেকে আগস্ট পর্যন্ত পাওয়া যায়। মাছের প্রজনন অভ্যাস নিয়ে গবেষণা করা হলেও বাংলাদেশে প্রজনন আচরণ নিয়ে নিয়মতান্ত্রিক তদন্তের অভাব রয়েছে।

উচ্চ বাজারের চাহিদার কারণে, এই গবেষণার লক্ষ্য যশোর জেলায় লাবিও গনিয়াসের জন্য একটি প্ররোচিত প্রজনন কৌশল বিকাশ করা, যেখানে মাছটি সম্প্রতি দুর্লভ হয়ে উঠেছে।

এটি সাইপ্রিনিডি পরিবারের অন্তর্গত মিঠা পানির মাছের একটি প্রজাতি। এটি সিন্ধু, গঙ্গা এবং ব্রহ্মপুত্র অববাহিকা সহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন নদী ব্যবস্থার স্থানীয়। এই মাছের প্রজাতি মাঝারি থেকে দ্রুত প্রবাহিত জলের সাথে নদী, স্রোত এবং হ্রদে বাস করে। এটি বালুকাময় বা পাথুরে সাবস্ট্রেটসহ পরিষ্কার জল পছন্দ করে।

সাধারণ নাম: ঘইন্যা, Goinna Fish (Labeo gonius)

বৈজ্ঞানিক নাম: লাবিও গোনিয়াস (Labeo gonius, Kuria labeo)

গনিয়া মাছের বৈশিষ্ট্য

গনিয়া মাছ একটি মাঝারি আকারের মাছ, যার একটি প্রসারিত শরীর এবং কিছুটা আর্চযুক্ত ডোরসাল প্রোফাইল রয়েছে। এটি সাধারণত প্রায় ৩০ সেন্টিমিটার দৈর্ঘ্যে বৃদ্ধি পায়, তবে কিছু ব্যক্তি ৪৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে।

আঁশযুক্ত এ মাছের কানের দু’পাশে এক জোড়া পাখনা, পেটে, লেজের কাছে এবং পিঠের উপর পাখনা আছে। সর্ব্বোচ ৩১ সে.মি লম্বা হয় এবং দেড় কেজি পর্যন্ত ওজন হয়ে থাকে।

শরীরটি পার্শ্বীয়ভাবে সংকুচিত হয় এবং শরীরের আকারের তুলনায় মাথা তুলনামূলকভাবে ছোট হয়। মাছটি যৌন দ্বিরূপতা প্রদর্শন করে, পুরুষরা প্রজনন মৌসুমে আরও রঙিন এবং প্রসারিত পেকটোরাল ফিন থাকে।

রঙের ক্ষেত্রে, গনিয়া ল্যাবিওতে সাধারণত একটি রূপালী-ধূসর বা জলপাই-সবুজ শরীর থাকে যার স্কেলগুলি গাঢ় মার্জিন থাকে, এটি একটি মোটা চেহারা দেয়। দেহের রং কালচে সবুজ। পেটের দিকের রং কিছুটা হালকা।

প্রজননের সময় পুরুষ মাছের পাখনাগুলো সাধারণত লালচে বা কমলা হয়। মাঝারী বয়সী পিঠের ফিনের গোড়ায় একটি হলুদ রঙের এবং একটি স্বতন্ত্র কালো দাগ প্রদর্শন করতে পারে।

প্রাপ্তিস্থান

বাংলাদেশে সমগ্রভুক্ত নদী-নালা, খালবিল, পুকুর এবং জলাশয়গুলিতে এই ধরনের মাছ প্রায়ই খুঁজে পাওয়া যায়। একটি প্রকৃতি উপহার, ভারতীয় মাঝারি কার্প, লাবিও গনিয়াস নামক একটি মাছের প্রজাতি, যা ভারতীয় উপমহাদেশের জলজ চাষের সম্ভাবনা রেখেছে। এটি বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন মিঠা পানির নদী, জলাধার, হ্রদ এবং ট্যাঙ্কগুলিতে চিরকাল থাকতে পারে।

সাধারণভাবে, মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিএনএ (এমটিডিএনএ) সিকোয়েন্সগুলি জীবজগতে জেনেটিক্স এবং বিবর্তন অধ্যয়নের জন্য একটি প্রধান আণবিক চিহ্নিতকারী হিসেবে ব্যবহৃত হয়। জেনেটিক্স, পরিবেশগত সম্পর্ক এবং বিবর্তনের ইতিহাসে মৌল্যবান তথ্য সরবরাহ করে।

আবাসস্থল

পানির উপরের স্তরে বাস করে।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ আমাদের কাছে সকল ধরণের প্রিয়াম শুঁটকি আছে। যারা প্রিয়াম কোয়ালিটি শুঁটকি ক্রয় করতে চাচ্ছেন তারা আমাদের ওয়েবসাইটে গিয়ে সরাসরি অর্ডার করুন অথবা আমাদের ফেইসবুক পেইজে ম্যাসেজ করুন। কল অথবা হোয়াটস্যাপ করুন 01823415176 এই নম্বরে।

FAQ

প্রশ্নঃ কিভাবে আমি আপনাদের গইন্না/ঘনিয়া শুঁটকি সহজে অর্ডার করতে পাড়ি?
উত্তরঃ ধন্যবাদ, আপনি আমাদে Fresh Shutki ওয়েবসাইটে গিয়ে সরাসরি অর্ডার করতে পারেন বা আমাদের Fresh Shutki ফেইসবুক পেইজে ম্যাসেজ করতে পারেন অথবা কল/হোয়াটস্যাপ যোগাযোগ করতে পারেন +৮৮০ ১৮২৩৪১৫১৭৬ এই নম্বরে।

প্রশ্নঃ কিভাবে এবং কতদিন বাসায় শুঁটকি সংরক্ষণ করে রাখা যাবে?
উত্তরঃ শুঁটকি ডিপ ফ্রিজে সংরক্ষণ করবেন ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার নিচে রাখবেন এবং রান্নার আগে নরমাল পানিতে ১০-১৫ মিনিট ভিজিয়ে নিন। গরম পানিতে ধোয়ার দরকার নেই। ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার নিচে না রাখলে এ শুঁটকি মাছ ১৫ দিন ভাল থাকবে।

ওজন

,

Shopping Cart
Scroll to Top